হোম বাণী ও উপদেশ কে দাঁড়িয়ে আছে আমার দরজায় (জালালউদ্দিন রুমী)

কে দাঁড়িয়ে আছে আমার দরজায় (জালালউদ্দিন রুমী)

কে দাঁড়িয়ে আছে আমার দরজায় (জালালউদ্দিন রুমী)

  • তিনি বললেন, “কে দাঁড়িয়ে আছে আমার দরজায়?”
    আমি বললাম, “আপনার এক অবনমিত এক বান্দা।”
  • তিনি বললেন, “তুমি কি কাজে এসেছো?”
    আমি বললাম, “আপনাকে সম্ভাষণ জানাতে, হে আমার প্রভু।”
  • তিনি বললেন, “তুমি কতদিন ভ্রমণ করতে থাকবে?”
    আমি বললাম, “যে পর্যন্ত না আপনি আমায় থামতে বলছেন।”
  • তিনি বললেন, “কতদিন তোমায় তুমি এ আগুনের মাঝে পুড়াবে?”
    আমি বললাম, “যে পর্যন্ত না হবো আমি পবিত্র, এটি হলো আমার ভালোবাসার সপথ। ভালোবাসার নিমিত্তে আমি করেছি বিসর্জন, আমার পথ আর আমার যত সম্পদ।”
  • তিনি বললেন, “তোমার মামলাটি যদিও তুমি করছো উপস্থাপন, কিন্তু সাক্ষীতো করোনি হাজির।”
    আমি বললাম, “আমার চোঁখের অশ্রুই আমার সাক্ষী, আর আমার বিবর্ণ চেহারাটিই আমার সাক্ষ্য।”
  • তিনি বললেন, “তোমার সাক্ষীর কোনো বিশ্বাস যোগ্যতা নেই, আর তোমার অতি অশ্রু ভেজা চোখগুলোতো দেখতে অক্ষম।”
    আমি বললাম, “আপনার ন্যায়বিচারের দ্যুতিতে, আমার চোঁখ দুটো পরিষ্কার এবং স্পষ্ট।”
  • তিনি বললেন, “তোমার চাওয়া টি তাহলে কি?”
    আমি বললাম, “আপনাকে আমি পেতে চাই, আমার অবিচল বন্ধু হিসেবে।”
  • তিনি বললেন, “আমা হতে তোমার কি প্রত্যাশা?”
    আমি বললাম, “আপনার অপরিসীম অনুগ্রহ।”
  • তিনি বললেন, “তোমার যাত্রা পথটি তে কে ছিল সঙ্গী?”
    আমি বললাম, “আপনার ধ্যান,হে আমার প্রভু।”
  • তিনি বললেন, “কে তোমায় এখানে প্রনোভীত করে এনেছে?”
    আমি বললাম,”আপনার শরাবের সুগন্ধ।
  • তিনি বললেন, “কি বয়ে নিয়ে আসে তোমার সবচাইতে পরিপূর্ণতা?”
    আমি বললাম, “প্রভুর সান্নিধ্য।”
  • তিনি বললেন,”তাহলে প্রাসাদটি এতো নির্জন কেন?”
    আমি বললাম, “তারা সবাই চোর কে ভয় পায়।”
  • তিনি বললেন, “চোরটি তাহলে কে?”
    আমি বললাম,”আপনার সান্নিধ্য হতে যে আমায় ভুলিয়ে রাখে।”
  • তিনি বললেন, “সেখানে কোথায় আছে নিরাপত্তা?”
    আমি বললাম, “সেবা এবং ত্যাগের মাঝে।”
  • তিনি বললেন, “সেখানে ত্যাগ করার কি আছে?”
    আমি বললাম, “মুক্ত হবার বাসনা।”
  • তিনি বললেন, “সেখানে কোথায় আছে বিপর্জয়?”
    আমি বললাম, “আপনার ভালোবাসার উপস্থিতিতে।”
  • তিনি বললেন, “এ জীবন থেকে তুমি কি ফায়দা কুড়োতে পারো।”
    আমি বললাম, “নিজের প্রতি সদা সত্য থেকে। এবং সময় হয়েছে আমার শান্ত হবার, যদি তোমায় আমি বলি তার প্রকৃত সত্তা সম্পর্কে, তুমি তখন উরে যাবে তোমার নিজ থেকে এবং হবে একেবারেই উধাও, আর এ দরজা কিংবা ছাদ এর কোনোটাই তোমায় আর রাখতে পারবে না।”

– মাওলানা জালালউদ্দিন রুমী (রহঃ)

পূর্ববর্তী পোস্টবায়াত অর্থ কি এবং কেনো বায়াত হতে হবে?
পরবর্তী পোস্টজাযাকাল্লাহু খায়রান অর্থ
আমি বিজাত নই, তোমারই জাত! আজ গুন হারিয়ে গুরুত্বহীন-তুমি স্বাধীন আমি পরাধীন-অবশ্যই একসাথে ছিলাম একদিন।