হোম ইসলামিক কবিতা ও ছন্দ স্রষ্টার প্রেমে মাতাল (মাওলানা রুমি)

স্রষ্টার প্রেমে মাতাল (মাওলানা রুমি)

ভাষান্তর: Bangla | English | Hindi | Arabic | Persian

স্রষ্টার প্রেমে মাতাল (মাওলানা রুমি)

তুমি তো হয়েছো মাতাল
আর আমি অপ্রকৃতিস্থ
কেউ’ই তো নেই আশে-পাশে,
যে পথ দেখিয়ে আমাদের
বাড়ি নিয়ে যেতে পারে।
বার বার আমি তোমায় বলেছিলাম
কিছুটা কম পান করতে;
দু এক পেয়ালা কম।

আমি তো জানি
এ শহরে কেউ নয় মৃতপায়ী,
এক জন হতে আরেকজন আরো মন্দ।
একজন দিশেহারা,
আর আরেকজন বদ্ধ উন্মাদ

এসো হে আমার বন্ধু পদার্পন করো,
স্রষ্টার প্রেমে ধ্বংস
হয়ে যাবার এ পানশালায়।
নতুন আরেকটির বন্ধুর
সান্নিধ্যে এসে স্বাদ নাও
জীবনের অমৃত সঞ্জিবনীর।।

এখানে প্রতিটি কোনায় দেখবে,
স্রষ্টার ধ্যানে মগ্ন কোন মাতাল।
আর পরিবেশক অমৃতের ভান্ড হাতে,
চক্কর দিতে ব্যাস্ত।।

আমি যখনি বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলাম,
ঠিক তখনি আমার কাছে
এলো একজন মাতাল;
স্রষ্টার প্রেমে মাতাল।।
যার আভাতে স্বর্গের
একশত বাড়ি হলো আলোকিত।।
দুলছেন আর গড়াচ্ছেন।।

তিনি যেন একটি
নোঙ্গরহীন পালের নৌকৌ,
কিন্তু আসলে তিনি হলেন
উপকূলে থেকে যাওয়া
সব বিচক্ষন ব্যাক্তির ঈর্ষার পাত্র।।

আপনি কোথা হতে এসেছেন?
আমি প্রশ্ন করলাম তাকে;
তিনি উপহাসের ছলে
হাসলেন আর বললেন,
এক অর্ধেক পূর্ব হতে,
এক অর্ধেক পশ্চিম হতে,
এক অর্ধেক তৈরী পানি আর মাটি দ্বারা,
এক অর্ধেক তৈরী হৃদয় আর আত্মা দ্বারা।।

এক অর্ধেক আছে সমুদ্রের তীরে,
আর এক অর্ধেক বাস করে
সমুদ্রের গভীরে মুক্তোর ভেতর।।

আমি অনুনয় করলাম,
আমায় আপনি বন্ধু
করে সাথে নিবেন?
আমি তো আপনার
অতি নিকটের আত্মিয়।।

তিনি বললেন,
আমি তো স্বজনদের চিনিনা।
অপরিচিতজনের কাছে আমি রেখে এসেছি,
আমার যত বিষয় সম্পত্তি।।

আর প্রবেশ করেছি স্রষ্টার
অমৃত সঞ্জিবনীর এ পানশালায়।
আমার কেবল আছে
বুক ভর্তি অনেক শব্দ,
কিন্তু ওগুলোর একটিও আমি আজ
আর উচ্চারণ করতে জানিনা।।

-মাওলানা জালালউদ্দিন রুমি (রহ:)।

পূর্ববর্তী পোস্টখোদায়ী শ্রেষ্ঠত্ব ব্যক্তিদের নিকট চার প্রকার লোকের সমাগম হয়:
পরবর্তী পোস্টযদি তোমার ঘুম না আসে (মাওলানা রুমি)
"প্রভুই শান্তি, প্রভুতেই শান্তি, প্রভুই চির শান্তিদাতা, প্রভুই চির মুক্তিদাতা"

এই পোস্টে একটি মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন