হোম আহলে বায়াত (পাকপাঞ্জাতন) মাওলা আলীর শান-মান: পর্ব-১৯

মাওলা আলীর শান-মান: পর্ব-১৯

মাওলা আলীর শান-মান: পর্ব-১৯

দয়াল রাসূল পাক (সাঃ) বলেছেনঃ
أََوَّلُ مَنْ صَلَّي مَعِي عَلِيٌّ.
“সর্বপ্রথম আমার সাথে যে নামায পড়েছে সে হলো আলী।”
কানযুল উম্মাল ১১:৬১৬/৩২৯৯২,আল ফেরদৌস ১:২৭/৩৯)।

জাহেরী জগতে সর্বপ্রথম ইসলাম ধর্ম কবুল করে মা খাদিজা (রাঃ)। তারপর মাওলা আলী ১০ বছর বয়সে দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসাবে ইসলাম ধর্ম কবুল করে। দয়াল রাসূল পাক (সাঃ) সর্বপ্রথম মাওলা আলীকে সাথে নিয়ে নামাজ আদায় করে এবং একসাথে মহান আল্লাহর দীদার লাভ করে। মাওলা আলী প্রথম এবং শেষ ব্যক্তি ক্বাবা ঘরে জন্মগ্রহণ করে চোখ মেলে দয়াল রাসূল (সাঃ) কে দর্শন করে এবং প্রথম খাদ্য হিসাবে দয়াল রাসূলের লালা মোবারক পান করে। মূলত হাকিকতে সেটা লালা মোবারক ছিলো না বরং দয়াল রাসূলের সমস্ত জ্ঞানের ভান্ডার মাওলা আলী পান করে।

দয়াল রাসূল (সাঃ) ভালোবেসে মাওলা আলীকে সাথে নিয়ে প্রথম নামাজ আদায় করে। মূলত এখানে মাওলা আলীর শানমান সকলের চেয়ে উর্ধ্বে বুঝানো হয়েছে। অনেক সময় গোপনে মাওলা আলীর ইমামতিতে দয়াল রাসূল পাক (,সাঃ) অসংখ্যবার দুজনে একত্রে নামাজ আদায় করছেন। মাওলা আলীর গোপন ভেদ দয়াল রাসূল পাক (সাঃ)। আবার দয়াল রাসূলের গোপন ভেদ মাওলা আলী।

নিবেদক : অধম পাপী মোজাম্মেল পাগলা।

পূর্ববর্তী পোস্টমাওলা আলীর শান-মান: পর্ব-১৮
পরবর্তী পোস্টমাওলা আলীর শান-মান: পর্ব-২০
অধম ভিখারি তোমার দুয়ারে নতশিরে দাঁড়িয়ে আছে। চরণ ভিক্ষা দাও, নচেৎ গলাটিপে মেরে ফেলো।