হোম ওলীদের কারামত দুই লায়লার চক্করে – জালালউদ্দীন রুমি (রহঃ)

দুই লায়লার চক্করে – জালালউদ্দীন রুমি (রহঃ)

দুই লায়লার চক্করে – জালালউদ্দীন রুমি (রহঃ)

মাওলানা জালালউদ্দীন রুমি (রহঃ) মসনবীতে লিখেছেন,

মজনু একদিন উটের পিঠে চড়ে লায়লার সাক্ষাতের জন্য যাচ্ছিলেন। কিছুদূর যেতে না যেতেই মজনু লায়লার ধ্যানে অনেক বিভোর ও আত্মবিস্মৃত হয়ে পড়লেন, ফলে উটের লাগাম আলগা হয়ে গেল। এই সুযোগে উট পিছনে ঘুরে মজনুর বাড়ীর দিকে যেতে লাগল। কারণ বাড়ীতে ঐ উটনীর বাচ্চা ছিল। যার মহাব্বতে উটনী ব্যকুল ছিল।

লায়লার ধ্যান কেটে গেলে মজনু দেখলেন উট তার বাড়ীর দিকে যাচ্ছে। তিনি আবার উটকে লায়লার বাড়ীর দিকে হাকালেন। কিন্তু অল্পক্ষণ পর আবার তার উপর লায়লার ধ্যান গালেব হল, ফলে উটের লাগাম আলগা হল এবং উট ঘুরে আবার মজনুর বাড়ীর দিকে চলতে লাগল। কয়েকবার এরকম হবার পর মজনু বুজতে পেরে বললেন, আমি কখনই এভাবে আমার লায়লার কাছে পৌছতে পারব না। কারণ আমার লায়লা সামনে আর উটনীর লায়লা পিছনে। মজনু রাগ করে উটের পিঠ থেকে লাফ দিল ফলে তার পা ভেঙ্গে গেল।

মাওলানা রুমি রহঃ বলেন,

আমাদের রূহ তো চায় আখিরাত তথা আল্লাহ তায়ালার দিকে ধাবিত হতে কিন্তু আমাদের নফস চায় দুনিয়ার দিকে ধাবিত হই।

আসলে আমরা দূনিয়া ও আখিরাত এই দুই লায়লার চক্করের মধ্যে আছি। হে আল্লাহ্! আমাদের সকলকে এই চক্কর থেকে উদ্ধার করে শুধু তোমার বানিয়ে নাও।

গ্রন্থসূত্র: মসনবী (জালালউদ্দীন রুমি রহঃ)

পূর্ববর্তী পোস্টখিজির (আঃ) এর ৭টি অমুল্য বাণী।
পরবর্তী পোস্টমজ্জুব ওলি কাদের বলা হয়!
আমি বিজাত নই, তোমারই জাত! আজ গুন হারিয়ে গুরুত্বহীন-তুমি স্বাধীন আমি পরাধীন-অবশ্যই একসাথে ছিলাম একদিন।