বিমান ল্যান্ড: কারামতে বিশ্বওলি ফরিদপুরী।

ভাষান্তর: | বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी العربية العربية

বিমান ল্যান্ড: কারামতে বিশ্বওলি ফরিদপুরী।

৬০ এর দশকের কথা। বর্তমান দরবার শরীফের বাহিরাঙ্গনে প্রধান গেইট থেকে মাদ্রাসা ভবন পর্যন্ত যে পাকা রাস্তাটি রয়েছে এর উপর ছিল একটি কাঠের সেতু বা কাঁচা কালভার্ট। দুই পাশের বিস্তীর্ণ মাঠ ছিল নিচু জলাশয়। মাদ্রাসা ভবন কিংবা ছাত্রাবাস এ সবের চিহৃও তখন ছিল না। ভরা বর্ষায় এখানে রীতিমতো ঢেউ খেলতো। সে সময় একদিন বাড়ির মাওলানা মরহুম সাদেকুর রহমান ও অন্যান্য কয়েকজন জাকেরসহ পীর কেবলাজান হুজুর সেখানে গেলেন।

চারদিকে থেকে মৃদু বাতাসে ঢেউ খেলানো জলাশয়ের দিকে তাকিয়ে উপস্থিত সবাইকে লক্ষ্য করে প্রশ্ন রাখলেন, “আচ্ছা, এখানে বিমান ল্যান্ড করতে পারবে না?” পীর কেবলাজানের এ অপ্রত্যাশিত ও দুর্বোধ্য প্রশ্ন শুনে সবাই অবাক বিস্ময়ে পরস্পরের চোখ চাওয়া-চাওয়ি করছিলেন। ভাবখানা এ রকম যেন পীর কেবলাজান হুজুর ভাবান্তরিত অবস্থায় অবাস্তব ও অসম্ভব কিছু বলে ফেলেছেন। কিছু বছর পর হুজুরপাকের ভবিষ্যৎ বাণী মোবারক সত্য হলো। ঠিক ঐ জায়গাটাতেই এখন বিশাল হ্যালিপ্যাড তৈরী হয়েছে। প্রায়ই এখানে হেলিকপ্টার ল্যান্ড করে।

কেউ বুঝিতে পারে না ওলী আল্লাহর খেলা
আমার খাজাবাবার খেলা।

তথ্য সূত্র: কারামতে বিশ্বওলি খাজাবাবা ফরিদপুরী – কুঃছেঃআঃ (ফেসবুক পেজ)

error: অনুমতিহীন কপিকরা দণ্ডনীয় অপরাধ!