হোম পেজ আহলে বায়াত (পাকপাঞ্জাতন) মহররম দুঃখের নাকি আনন্দের মাস!

মহররম দুঃখের নাকি আনন্দের মাস!

মহররম দুঃখের নাকি আনন্দের মাস!

একদল মুসলিম আলেমগন বলেছেন যে ‘মুহাররম আনন্দের মাস, শোকের মাস নয়’। কারন হিসেবে তারা উল্লেখ করেছেন অনেকগুলো শুভ ঘটনার কথা। তারা বুঝাতে চাচ্ছেন যে, এক ঈমাম হুসাইন (আঃ) এর শাহাদাতের শোকের বিপরীতে এই মাসে রয়েছে হাজারও আনন্দের কারন।

আমরা মেনে নিলাম তাদের যুক্তি। কিন্তু আমাদের ক্ষুদ্র একটা প্রশ্ন সেইসব আলেমদের কাছে….

মনে করুন..

  • আপনার ছেলের চাকরী হল আজকে।
  • আজকেই আপনার নাতিন জন্মগ্রহন করল।
  • আজকেই আপনার বিধবা মেয়ে বিয়ে ঠিক হল।
  • আজকেই আপনি দীর্ঘদিনের মামলায় জয়ী হলেন।
  • আজকেই আপনার মরনব্যধি রোগ দূর হল।

এরকম হাজারো ভাল ঘটনা ঘটল আজকের এই দিনে। কিন্তু হঠাৎ শুনলেন আপনার বাবা ও মা দুইজন একসাথে রোড এক্সিডেন্টে মারা গেছেন। এমতাবস্থায় আজকের এই দিনটি কি আপনার জন্য আনন্দের থাকবে?

আপনি মানুষ হয়ে থাকলে কখনোই এই দিনে আনন্দ করতে পারবেন না। যদিও হাজারো আনন্দের ঘটনা ঘটেছে এইদিন। কারন মাতাপিতা হারানোর শোকের সামনে এরকম শত সহস্র আনন্দ তুচ্ছ। সেখানে মুসলিম হয়ে ঈমাম হুসাইন (আঃ) এর শাহাদাতে শোক পালন না করে আনন্দ করার কথা আপনি ভাবছেন কিভাবে?

আপনি সত্যই মুসলিম তো? নাকি ইয়াজিদ এর বাহিনীর কারো বীর্যে জন্মগ্রহণকারী কোনো ব্যক্তির বংশধর?

বিঃদ্রঃ শুধু ওহাবী আলেমরাই নয়, আজকাল কিছু সুন্নী নামধারী আলেম ও পীরেরাও বলে বলে যে, মুহাররম শোকের নয়, বরং আনন্দের মাস।

ইয়া মাওলা হোসাইন!!!

লেখাঃ DM Rahat

Donationdonate
পূর্ববর্তী পোস্টবায়াত প্রসংগে কোরান ও হাদিসের দলিল।
পরবর্তী পোস্টআহলে বায়েত (আঃ) শিয়াদের বাপ দাদার সম্পত্তি না
"আমি মানুষেরেই পূজি, মানুষের মাঝেই আমি আল্লাহ-গড-ভগবানকে খুঁজি।"