হোম পেজ আত্ম সচেতনতা সকল ধর্মের মূল ভিত্তিই মন

সকল ধর্মের মূল ভিত্তিই মন

সকল ধর্মের মূল ভিত্তিই মন

মনঃ সকলি হয় আপন মনের গুনে। সকল ধর্মের মূল ভিত্তি এই মন কে গড়ল মুক্ত করে সরল করা। কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ, মদ, মাৎসর্য এই ছয় রিপু ও চক্ষু, কর্ন নাসিকা, জলদ্বার, মলদ্বার জিহ্বা, বাক, ত্বক,হাত, পা এই দশ ইন্দ্রিয়ের ফেরে পরে মন ডালে ডালে বেড়াই। এই সাড়ে তিনহাত দেহে থাকতে চাই না।

অথচ এই দেহের বক্ষস্থল বা কুলুবিল ছদুরে তার বসবাস। মন পানির মত। যখন যেখানে গমন করে তখন সেই পাত্রের রং ও আকার ধারন করে। দিবানিশি সেই আপন মনেই কথা বলে চলছে অবিরাম কাজ করে চলছে। পরমের মন এসে জীবের মন কে হরণ করলে তখন সে স্বপন দেখে। মন বিবাগী বাগ মানানো খুব কঠিন। সদায় মন কুকাজে রত থাকতে চাই।

তাই অনেকে বলেছে লোভী মন, ভোলা মন, লুধি মন ইত্যাদি। মন নফসের খায়েসের কারনে সদায় কলুষিত হচ্ছে। একে ক্বলবেসালিম বা কুলুষিত মুক্ত রাখতে একমুখী করতে হবে। আর তা হলো গুরু বরযখে মনকে এক নিরিখে বাধতে হবে। মন সুতায় ঐ রুপ জপতে হবে। তবেই মনে মন মিশে এক মন চিত্তে হবে।

আর তখনই সদানন্দ, পরমমান্দ, প্রেম হবে স্বরুপে রুপ ধিয়ান করে। পাছ আনফাছ বা নফি এজবাতের যিকির করে। নজর কর বা কদম বা নিজ পায়ের পাতার উপর তাকায়ে গুরুর চরণ মনে করে না হলে মন সরলা, কি ধন মিলে কোথায় ঢুড়ে।

Donationdonate
পূর্ববর্তী পোস্টদশ হরফ – (আধ্যাত্মিক কবিতা)
পরবর্তী পোস্টনারী হরণ করলে চৌরাশীতে হবে জনম
আমি সংসারে বাস করি, সংসার ছেড়ে যায় না আমি- সন্ন্যাসের বেশ ধরি।। কর্ম আমার বড় ধর্ম- এতে আমার সকল মর্ম।।