হোমপেজ আধ্যাত্মিক কবিতা সৈয়দ মামুন চিশতীর আধ্যাত্মিক বাণী (পর্ব-৪)

সৈয়দ মামুন চিশতীর আধ্যাত্মিক বাণী (পর্ব-৪)

সৈয়দ মামুন চিশতীর আধ্যাত্মিক বাণী (এলহামে এলাহী)

৩১//
মানুষ মানুষকে হারাইয়া পরে,
সে মানুষের রূপ খোঁজে ধারে ধারে,
মানুষ মিলে মানুষের জোড়ে,
সেই মানুষ আর মিলে নারে।

৩২//
খোদার পায়ের নলা দেইখা,
কর সেজদা আল্লাহরে
এখানে না চিনলে পরে,
মেরুদন্ড থাকবে সোজা রে!
আশেক যারা চিনবে তারা,
মাঁশুক চরণ কয় যাহারে
তার আরেক নাম পাই দলিলে,
গুঁরু চরণ কয় তাহারে।।

৩৩//
প্রেম পূজায় যে সেবিছে ঈশ্বর
তার পূজা কখনো হয় না বৃথা-
বলে পরমেশ্বর!!

৩৪//
হৃদে, চোখে, মস্তিস্কে কিংবা কল্পনারই তরে।
যে গেঁথেছে তাঁরে, শ্বাশত চিন্তা-চেতনারই ভিতরে।
যেই দিকে কিংবা কোনো, বস্তুরই অন্তরালে দৃষ্টিপাত করে।
সর্বদায় সর্বময়, সে রূপ দর্শন দেয় তারে।
যেবা ভাগে দ্বীন মিয়া রয়, আমারই ভিতরে,
বলো কারবা আছে সাধ্য, তাঁর ছবি মুছিতে পারে?

৩৫//
সকল কথার একটাই মানে,
ধরে রাখিস ভাই দেহের পানি,
যে ধরতে পারে নাই অমূল্য এ রত্নখানি,
তার যে দুদর্শা হবে, এটাই সত্য এটাই জানি।

৩৬//
যা অর্জন করা তোমার পক্ষে দূর্জয়,
অসাধ্য, অতিন্দ্রীয় ও কঠিনতর,
সেখানে প্রয়োগ কর প্রেম;
দেখবে সে বস্তুটাই তোমার হয়ে যাবে।

৩৭//
নিষ্কাম প্রেমই একমাত্র মনুষ্য মুক্তির উপায় আর
এ মনুষ্য দেহ-ই একমাত্র মুক্তির দরজা। মনুষ্য শরীরের বাহিরে
গিয়ে মুক্তি খুজার কোন যৌক্তিকতা দেখিনে।

৩৮//
মানুষ রূপে পৃথিবীর বুকে,
আসলিরে মন কোন পথে।
চাইয়া দেখো নয় বাতুনে,
আত্মা আসে কোন রথে।

৩৯//
পঞ্চ প্রেমে বাধো তাঁরে
পঞ্চ ইয়াকিনের ঘরে,
ডাকো তাঁরে ভক্তি ভরে
হৃদ মন্দিরে স্থাপন করে।।

৪০//
মুর্শিদ হইলো খানায়ে কাবা
যারে দিয়া আল্লাহ পাবা
অবহেলায় সব হারাইবা
মুর্শিদ ইয়াদ রাখো সর্বদা

বাণী: সৈয়দ মামুন চিশতী

» সৈয়দ মামুন চিশতীর আধ্যাত্মিক বাণী (সব পর্ব)