হোমপেজ আল কোরানের বাণী ও তাফসীর আদম পৃথিবীতে আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি।

আদম পৃথিবীতে আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি।

আদম পৃথিবীতে আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি।

কোরানিক দর্শন জানান দিচ্ছে, আদম পৃথিবীতে আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি। কিন্তু আদম সন্তান তথা বনি আদম পৃথিবীতে আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি নয়। শয়তান মুক্ত জাগ্রত রূহের অধিকারীকে আদম বলা হয়। এই আদম সর্বজনীন। আর শয়তান মুক্তির মুজাহেদা লিপ্ত সাধককে বলা হয় বনি আদম।

সুরা বাকারার ৩০ নং আয়াতে আমরা দেখতে পাই:

قَالَ رَبُّكَ لِلْمَلاَئِكَةِ إِنِّي جَاعِلٌ فِي الأَرْضِ خَلِيفَةً قَالُواْ أَتَجْعَلُ فِيهَا مَن يُفْسِدُ فِيهَا وَيَسْفِكُ الدِّمَاء وَنَحْنُ نُسَبِّحُ بِحَمْدِكَ وَنُقَدِّسُ لَكَ قَالَ إِنِّي أَعْلَمُ مَا لاَ تَعْلَمُونَ

অর্থ: “আর তোমার পালনকর্তা যখন ফেরেশতাদিগকে বললেনঃ আমি পৃথিবীতে একজন প্রতিনিধি বানাতে যাচ্ছি, তখন ফেরেশতাগণ বলল, তুমি কি পৃথিবীতে এমন কাউকে সৃষ্টি করবে যে দাঙ্গা-হাঙ্গামার সৃষ্টি করবে এবং রক্তপাত ঘটাবে? অথচ আমরা নিয়ত তোমার গুণকীর্তন করছি এবং তোমার পবিত্র সত্তাকে স্মরণ করছি। তিনি বললেন, নিঃসন্দেহে আমি জানি, যা তোমরা জান না।” (সুরা বাকারাহ ২ঃ৩০ নং আয়াত)

মন্তব্য: সুতরাং আদম আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু বনি আদম আল্লাহর খলিফা তথা প্রতিনিধি সমগ্র কোরানিক দর্শনে কোথাও নেই।

বনি আদম সম্পর্কে আমরা কোরানের ইয়াসিনের ৬০ নং আয়াতে দেখতে পাই নিম্নরূপ:

أَلَمْ أَعْهَدْ إِلَيْكُمْ يَا بَنِي آدَمَ أَن لَّا تَعْبُدُوا الشَّيْطَانَ إِنَّهُ لَكُمْ عَدُوٌّ مُّبِينٌ

হে বনী-আদম! আমি কি তোমাদেরকে বলে রাখিনি যে, শয়তানের এবাদত করো না, সে তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু?

মন্তব্য: সুতরাং যার সাথে শয়তান থাকে সে কিভাবে আল্লাহর প্রতিনিধি হয়?

নিবেদক: আর এফ রাসেল আহমেদ