হোমপেজ আমল ও ওজিফা কামেল পীর হওয়ার উপায়।

কামেল পীর হওয়ার উপায়।

602

কামেল পীর হওয়ার উপায়।

পীরে কামেল হওয়ার কিছু সাধন কৌশল:-
কতবার বলেছি, বারবার বলেছি! কথার মধ্যে খোদা নাই, খোদার মধ্যে কথা নাই। সাবধান করে দিয়েছি, সতর্ক হবার বার বার অনুরোধ করেছি, অপরিসীম গুরুত্ব প্রদান করেছি, মাত্র একটি উপদেশের জন্য। যে উপদেশটি খুব কম মানুষই অনুসরণ করে, অনুকরণ করে, এবং মাথা পেতে মেনে নেয়, আর সেই উপদেশটি হলো- আপন পীরের ধ্যানে ডুবে যাওয়া।

সবচেয়ে কঠিন, সবচেয়ে শক্ত কাজটিই হলো আপন পীরের মধ্যে নিজেকে ডুবিয়ে দেওয়া। কেমন করে ডুবিয়ে দেব? কী করলে ডুবে যাব? জিকিরের বিভিন্নতা দিয়ে নয়। যে বিষয়টি দিয়ে তুমি আল্লাহর ওলি অবশ্যই হতে পারবে, সেই বিষয়টি হলো, আপন পীরের ধ্যান করা। এই পীরের ধ্যান না থাকলে তুমি কিছুই পাবে না। তোমার ভাগ্যে জুটবে কাঁচকলা, না হয় সাগর কলা।

মানুষ বকবক করতে পছন্দ করে, মানুষ নাচতে পারে, গান গাইতে পারে, চিৎকার দিতে পারে, কাঁদতে পারে, মাতম করতে পারে, শরীরে শিকল পরতে পারে, কিন্তু পীরের ধ্যান করা বড়ই কষ্টকর। সেই ধ্যানকেই বলে তাসাব্বুরে শাইয়েখ, সেই ধ্যানকেই বলে নিরিখ-বর্জাখ, সেই ধ্যানকেই বলে একরাক-ব্যাহেমে গুমা, সেই ধ্যানকেই বলে কুমুসুবু, সেই ধ্যানকেই বলে মাদহোসে সাগর।

আমার এই হাত দুটো আমার না, আমার গুরুর। পা দুটো আমার না, আমার গুরুর। চোখ-কান-নাক-মুখ সব আমার গুরুর। আমারই মধ্যে গুরু। আমি হাঁটি না, আমার গুরু হাঁটে। আমি হাত দিয়ে কাজ করি না, আমার গুরু করে। আমি চোখ দিয়ে দেখি না, গুরু দেখে। আমি কান দিয়ে শুনি না, গুরু শুনে। আমি খাই না, গুরু খায়। এইটাই পীরের ধ্যান। তাহলে তুমিও কামেল হতে পারবে।

এই ধ্যান বিহনে ফকির হওয়া অসম্ভবেরও অসম্ভব। মানুষের মনের গতি আলোর গতির চেয়েও ভয়ঙ্কর।  আলোর গতি প্রতি সেকেন্ডে এক লক্ষ ছিয়াশি হাজার মাইল। কিন্তু মনের গতি সেই আলোর গতির চাইতেও অনেক অনেক গতিশীল। এই গতিকে থামিয়ে দিয়ে একের মধ্যে নিয়ে আসতে পারলেই তুমি পীরে কামেল হয়ে যাবে।

– কালান্দার বাবা জাহাঙ্গীর আল সুরেশ্বরী (রহঃ)