হোম আধ্যাত্মিক প্রশ্ন ও উত্তর আধ্যাত্মিক প্রশ্নোত্তর (পর্ব-১০)

আধ্যাত্মিক প্রশ্নোত্তর (পর্ব-১০)

ভাষান্তর: Bangla | English | Hindi | Arabic | Persian

আধ্যাত্মিক প্রশ্নোত্তর (পর্ব-১০)

৫০.
শিষ্যঃ পূণ্য (সওয়াব) কি?

গুরুঃ যে কর্ম করার পর তোমার মনে আনন্দ জাগে এবং মানুষের কাছে তা প্রকাশ করতে তোমার ভাল লাগে, সেটাই পূণ্য। অর্থাৎ কোনো কর্মের পর তোমার ভিতরের বিবেক গুরু যদি রায় দেয় যে তুমি ভাল কাজ করেছো, তবেই সেটা পূন্য।

৫১.
শিষ্যঃ পাপ (গুনাহ) কি?

গুরুঃ যে কর্ম করার পর তুমি নিজেই নিজের কাছে লজ্জিত হও এবং তুমি চাও না কোনোভাবেই তা মানুষের কাছে প্রকাশ হোক, সেটাই পাপ কর্ম।

৫২.
শিষ্যঃ পাপ-পূন্য কি কর্মের উপর নির্ভর করে নাকি মনোভাবের উপর নির্ভর করে? মানে পাপ-পূন্যের কি কর্ম আলাদা আলাদা ভাগ করা আছে? নাকি আমাদের নিয়ত বা মনোভাবের উপর কর্মটি পাপ বা পূন্যে রূপান্তরিত হবে?

গুরুঃ পাপ-পূন্য হবে নিয়ত তথা মনোভাবের উপর বিচার করে। যেমন কেউ নদীর তীরে একটা বাঁশের একটা খুঁটি স্থাপন করল এই ভেবে যে, যাতে কোনো মুসাফির উট বা ঘোড়া নিয়ে আসলে খুঁটিতে বেঁধে পানি পান করতে পারে। আবার আরেকজন এসে বাঁশের খুঁটি দেখলো এবং ভাবলো যে এই পথে অনেক অন্ধ লোকও চলা ফেরা করে, সুতরাং এই বাঁশ থাকলে তারা পরে গিয়ে আঘাত পাবে, তাই সে বাঁশের খুঁটি তুলে ফেলল। এখানে দুইজনেরই পুণ্য হবে। কারন দুইজনের উদ্দেশ্যই সৎ ছিল। অর্থাৎ কর্মটি পাপ নাকি পূন্যের, সেটা বিবেচিত হবে।

৫৩.
শিষ্যঃ পাপ-পূন্য নিয়ে যদি আরেকটু পরিস্কার করে বলতেন প্রভু, আরো উপকৃত হতাম।

গুরুঃ জীবকে শান্তি দেওয়া ধর্ম, আর অশান্তি দেওয়া অধর্ম। সেটা যেভাবেই হোক।

৫৪.
শিষ্যঃ প্রেম কি আর কাম কি?

চলবে…

» পরবর্তী পর্ব শুলো দেখুন

লেখাঃ DM Rahat

পূর্ববর্তী পোস্টআধ্যাত্মিক প্রশ্নোত্তর (পর্ব-০৯)
পরবর্তী পোস্টআধ্যাত্মিক প্রশ্নোত্তর (পর্ব-১১)
"আমি মানুষেরেই পূজি, মানুষের মাঝেই আমি আল্লাহ-গড-ভগবানকে খুঁজি।"

1 মন্তব্য

এই পোস্টে একটি মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন