হোম ইলমে মারেফত ওলিরা মানব রুপী হলেও তারা সাধারন মানুষের মত নন।

ওলিরা মানব রুপী হলেও তারা সাধারন মানুষের মত নন।

ওলিরা মানব রুপী হলেও তারা সাধারন মানুষের মত নন।

ওলীআল্লাহগণ এবং সাধারণ মানুষ দেখতে এক রকম হলেও উভয়ের মাঝে ব্যবধান অনেক। (মাওলানা জালালুদ্দিন রুমি রহঃ)

“মৌমাছি ও বোলতা উভয়ে এক ফুলের রসই আহরণ করে, তা বোলতার পেটে দংশনের বিষ আর মৌমাছির পেটে মধু হয়!”

“দুটি হরিণ একই ঘাস খায় একই পানি পান করে, একটির পেটে সে ঘাস পানি গোবর আর অপরটির পেটে কস্তুরি হয়!”

“বাঁশ এবং আখ (একই শ্রেণীর), উভয়ে একই স্থানের পানি চুষে, কিন্তু একটি মিঠা চিনিতে পরিপূর্ণ, অপরটি শূন্য!”

“পরস্পরে সাদৃশ্যপূর্ণ লক্ষ লক্ষ বস্তু দেখবে, অথচ সেগুলোর পরস্পরের মাঝে সত্তর বছরের পথ পরিমাণ ব্যবধান রয়েছে!”

“একজন ওলী এবং সাধারণ লোক, উভয়ে খাদ্য খাবার খায়, একজনের খাদ্য শুধু মল মূত্র হয়ে বের হয়ে যায়, অপরজনের মধ্যে আল্লাহর নূর হয় যাতে আল্লাহর এবাদত-বন্দেগীতে শক্তি লাভ করা যায়!”

“একজন খাদ্য খাবার খায়, তাতে কৃপণতা, ঈর্ষা ইত্যাদি অন্তর রোগের সৃষ্টি হয়, আর অপরজনের খাদ্য খায় তাতে তার মাঝে আল্লাহর প্রেম সৃষ্টি হয় (তিনি ভুক্ত খাদ্যের শক্তি আল্লাহর পথে ব্যয় করেন)!”

“একজন ওলী ও একজন বদকারের আকার-আকৃতি একই, কিন্তু একজন উর্বর জমির ন্যায় (তার ভেতরে বাইরে আল্লাহ প্রেমের বাগ-বাগিচা জন্মে), সে তাতে শোভিত হয় অপরজন ঊষর জমিতুল্য (তাতে ভালো কিছু জন্মে না), উভয়ের মাঝে আরও প্রার্থক্য হচ্ছে, একজন ফেরেশতাতুল্য, পাক-পবিত্র (তাঁর মধ্যে স্বেচ্ছাচার, স্বৈরাচার, জুলুম-অত্যাচার ইত্যাদি পশুত্ব স্বভাবের কিছুই জন্ম নেয় না), পক্ষান্তরে অপরজন দেও-দানব ও হিংস্র জন্তুতুল্য!”

“উল্লিখিত ব্যক্তিদ্বয় আকৃতিতে যদিও একই রকম মানুষের আকৃতিবিশিষ্ট, কিন্তু উভয়ের মাঝে আকাশ-পাতাল ব্যবধান, মিঠা পানি ও লোনা পানি আকৃতিতে এক, উভয়ই স্বচ্ছ পরিষ্কার, এতদসত্ত্বেও উভয়ের পার্থক্য সুস্পষ্ট!”

– মসনবী শরীফ পৃষ্ঠা- ৯৩

পূর্ববর্তী পোস্টমোহাম্মদী তরিকার দরুদ শরীফ।
পরবর্তী পোস্টদরুদে উম্মী বাংলা উচ্চারন ও অর্থ।
আমি বিজাত নই, তোমারই জাত! আজ গুন হারিয়ে গুরুত্বহীন-তুমি স্বাধীন আমি পরাধীন-অবশ্যই একসাথে ছিলাম একদিন।