হোম শিক্ষণীয় ঘটনা ও বাণী কৃষ্ণভক্ত ও নাস্তিক নাপিতের মধ্যে কথোপকথনঃ

কৃষ্ণভক্ত ও নাস্তিক নাপিতের মধ্যে কথোপকথনঃ

কৃষ্ণভক্ত ও নাস্তিক নাপিতের মধ্যে কথোপকথনঃ

একদিন এক কৃষ্ণভক্ত লোক চুল কাটতে গেছে এক নাপিতের দোকানে। কিন্তু নাপিত হল নাস্তিক। তাঁর চুল কাটার সময় তাকে বিভিন্ন যুক্তি দিয়ে বুঝাতে চাচ্ছে যে সৃষ্টিকর্তা নেই।

নাস্তিক নাপিত বলতে লাগল, “যদি ঈশ্বর থাকত তাহলে এত লোক অনাহারে মারা যেত না।”

সে বাইরে একটা বস্ত্রহীন মানুষ (সেও ভগবানের প্রতি অবিশ্বাসী ছিল) দেখিয়ে বলল, “যদি ঈশ্বর থাকতো তাহলে ওই লোক অনাহারে কেন?”

কৃষ্ণ ভক্ত লোকটা কিছু বলল না। চুপ চাপ শুনে যেতে লাগল। এরপর যখন তার চুল কাটা শেষ হলো সে বাইরে গেল এবং নাপিতকে বাইরে ডেকে বলল, “এই এলাকায় কোনো নাপিত নেই।”

নাপিত তার কথায় অবাক হয়ে গেল এবং বলল, “নাপিত না থাকলে আপনার চুল কাটল কে?” তারপর কৃষ্ণ ভক্ত লোকটা কতগুলো লম্বা চুল ওয়ালা মানুষকে দেখিয়ে বলল, “নাপিত থাকলে ওই লোক গুলোর চুল লম্বা কেন.?”

নাপিত বলল, “ওই লোক গুলোকে তো আমার কাছে আসতে হবে। আমার কাছে না আসলে অথবা আমাকে না বললে আমি কি কিছু করতে পারব?”

কৃষ্ণভক্ত লোকটা তখন বলল, “ঠিক তেমনি সৃষ্টিকর্তার কাছে না গেলে সৃষ্টি কর্তাকে না ডাকলে সৃষ্টিকর্তা তোমার জন্য কি কিছু করতে পারবে? সকলেই আমরা সৃষ্টিকর্তার সন্তান। তিনি সর্ব জান্তা তদাপিও আমাদের তার স্মরনাপন্ন হতে হবে, কারণ সকল সমস্যার সমাধান যে তার মধ্যে নিহিত।”

পূর্ববর্তী পোস্টমাওলানা জালালউদ্দিন রুমির ৭টি বিশেষ গুণাবলীঃ
পরবর্তী পোস্টহালাক শব্দের অর্থ
“যে ব্যক্তি ধৈর্য ধারন করতে পারবে, সে কখনো সফলতা থেকে বঞ্চিত হবে না। হয়তো সফল হবার জন্য তার একটু বেশি সময় লাগতে পারে।” __হযরত আলী (আঃ)

এই পোস্টে একটি মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন