Tuesday, 9 Mar 2021
Category: সকল দলিল

পীরকে বাবা ডাকার দলিল।

পীরকে বাবা ডাকার দলিল। প্রশ্নঃ আউলিয়া ও পীর বুজুর্গকে “বাবা” ডাকা পবিত্র কোরানের দৃষ্টিতে জায়েজ কিনা? উত্তরঃ আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনের সুরা আহযাব ৬নং আয়াতে এরশাদ করেছেন, “নবী পাক (সাঃ) মুমিনদের প্রাণের চেয়েও অধিকতর নিকটবর্তী এবং তাঁর স্ত্রীগণ তাদের(মুমিনদের) মাতা।” সুতরাং, নবী সঃ এর স্ত্রী মুমিনদের মাতা হলে, নিঃসন্দেহে নবীগণ মুমিনের ‘বাবা’। এই পিতৃত্বের সাথে […]

Continue Reading ➞

পীর ধরা ফরজ-কোরআনের অসংখ্য দলিল।

পীর ধরা ফরজ-কোরআনের অসংখ্য দলিল। পীর শব্দটি পবিত্র কোরআন শরীফে নেই। কারন পীর শব্দটি ফার্সি ভাষা হতে বাংলা ভাষায় প্রবেশ করেছে। যেমনঃ নামাজ, রোজা, ফিরিস্তা, খোদা, ইত্যাদি শব্দগুলো কোরআন শরীফে-এ নেই। কারন উহা ফার্সি শব্দ, তবে এর প্রতিটি ফার্সি শব্দেরই প্রতিশব্দ কোরআন শরীফে আছে,  যেমনঃ নামাজ-সালাত, রোজা-সাওম, ফিরিশ্তা-মালাকুন ইত্যাদি। আবার সালাত আরবি শব্দটি স্থান বিশেষ […]

Continue Reading ➞

আহলে বায়েত কারা এবং পাক পাঞ্জাতন এর অর্থ।

আহলে বায়েত কারা এবং পাক পাঞ্জাতন এর অর্থ। রাসূল (সাঃ) বলেছেন, “নিশ্চয় আমি তোমাদের মাঝে দুটি ভারী বস্তু রেখে যাচ্ছি যদি এ দু’টিকে আকঁরে ধর কখনই পথভ্রষ্ট হবে না। যার প্রথমটি হচ্ছে, পবিত্র কোরআন ও দ্বিতীয়টি হচ্ছে আমার ইতরাত, আহলে বাইত, যদি একটিকেও ছাড় তবে পথভ্রষ্ট হয়ে যাবে।” আহলে বায়েত সম্পর্কে আল কোরআনে যেসমস্ত আয়াত […]

Continue Reading ➞

রাসূল (সাঃ) প্রতি যুগেই স্বশরিরে ছিলেন এবং আছেন।

রাসূল (সাঃ) প্রতি যুগেই স্বশরিরে ছিলেন এবং আছেন। পবিত্র কুরআন শরীফে আল্লাহ তায়ালা বলেন, “নিশ্চয়ই আমি প্রত্যেক জাতির মধ্যে রাসূল প্রেরণ করেছি, যেন তারা আল্লাহর ইবাদত করে।” (সূরা আন নাহল, আয়াত নং ৩৬)। “আমি রাসূল না পাঠানো পর্যন্ত কাউকে শাস্তি দেই না।” (সূরা বনী ইসরাইল১৭, আয়াত নং ১৫)। “হে রাসূল! আমি আপনাকে সাক্ষীদাতা, সুসংবাদদাতা ও […]

Continue Reading ➞

মুয়াবিয়াকে যে সমস্ত সাহাবা ও মহাপুরুষগণ পথভ্রষ্ট জানতেন

মুয়াবিয়াকে যে সমস্ত সাহাবা ও মহাপুরুষগণ পথভ্রষ্ট জানতেন মুয়াবিয়ার দুস্কার্যের কারণে যে সমস্ত সাহাবাগণ এবং মহাপুরুষগণ তাকে গোমরাহ ও পথভ্রষ্ট হিসেবে জানতেন তাদের নামের তালিকাটি হলাে: ১. উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা (রা:)। ২. উম্মুল মুমিনীন হযরত উম্মে ছালমাহ (রা:)। ৩. হযরত আবু দারদা (রা:)। ৪. হযরত আম্মার বিন ইয়াসির (রা:)। ৫. হযরত কায়েস বিন সাদ […]

Continue Reading ➞

যে নামাজের মধ্যে প্রভুর সাক্ষাৎ ঘটে।

যে নামাজের মধ্যে প্রভুর সাক্ষাৎ ঘটে। নামাজ হল ফার্সি শব্দ, আরবী শব্দ হল সালাত এবং বাংলা অর্থ- স্মরণ এবং সংযোগ স্হাপন করা। পবিত্র কুরআন শরীফে আল্লাহ তায়ালা সালাত কায়েম করতে বলছে। কায়েম অর্থ প্রতিষ্ঠিত করা। সালাত প্রতিষ্ঠাতা করা বুঝায়- আল্লাহর স্মরণ ও সংযোগকে চিরস্থায়ীভাবে প্রতিষ্ঠিত করা। হযরত রাসূল পাক সঃ যখন ৫৩ বছর বয়সে আল্লাহর […]

Continue Reading ➞

স্বয়ং আল্লাহ তাঁর রাসূল পাক (সা:) এর উপর মিলাদ পড়েন।

স্বয়ং আল্লাহ তাঁর রাসূল পাক (সা:) এর উপর মিলাদ পড়েন। মিলাদ আরবী শব্দ। এর অর্থ – জন্মকাল। এককথায় বিশ্বনবী হযরত রাসূলে করীম সঃ এর জন্মকালীন ঘটনাবলীকে মিলাদ বলা হয়ে থাকে। পবিত্র কুরআন শরীফে আল্লাহ বলেন, “নিশ্চয়ই আল্লাহ স্বয়ং ও তাঁর ফেরেশতারা নবীর উপরে দরুদ পাঠ করেন, হে বিশ্বাসীগণ! তোমরাও তাঁর উপরে দরুদ পড় এবং শ্রদ্ধার […]

Continue Reading ➞

চিশতিয়া তরিকার শাজরা শরিফ।

চিশতিয়া তরিকার শাজরা শরিফ। (১). হয়রত মুহম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। (২). হযরত আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু। (৩). হযরত হাসান বসরী রাহমাতুল্লাহি আলাইহি রাহমাহ। (৪). হযরত আবদুল ওয়াহেদ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি রাহমাহ। (৫). হযরত খাজা ফজর আলাইহি রাহমাহ। (৬). হযরত ইব্রাহিম ইবনে আদম বালখী রাহমাতুল্লাহি আলাইহি রাহমাহ। (৭). হযরত খাজা হোবায়ারা রাহমাতুল্লাহি আলাইহি রাহমাহ। (৮). হযরত খাজা মোমশাদ […]

Continue Reading ➞

কোরআনে আল্লাহ যাদেরকে অনুসরণ করতে নিষেধ করেছেন।

আত্মা বা ক্বালব জিন্দা করার অর্থ হলো সর্বাবস্থায় ক্বালব আল্লাহর স্মরন বা জ্বিকিরে নিমগ্ন থাকা ৷ আত্মার মুখে জ্বিকির না থাকলে সে আত্মাকে মৃত আত্মা বলা হয় ৷

Continue Reading ➞

আল্লাহর দেওয়া আমানত কি এবং আমানত কাকে বলে।

আল্লাহর দেওয়া আমানত কি এবং আমানত কাকে বলে। (সবার জন্য এই পোস্ট নহে। শুধুমাত্র চিন্তাশীল এবং সাধকের জন্য প্রযোজ্য।) আসুন জেনে নিই কোরআন ও হাদিসের আলোকে। মহান আল্লাহ তায়ালা সর্বপ্রথম পৃথিবীতে তাঁর প্রতিনিধি প্রেরণের বাসনা পোষণ করে ফেরেশতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, “নিশ্চয়ই আমি ভূ- পৃষ্ঠে আমার প্রতিনিধি প্রেরণ করবো।” (সূরা: আল বাকারা, আয়াত নং ৩০।) ফেরেশতারা […]

Continue Reading ➞

আহলে বায়েত কারা? তাঁদের অনুসরণ করা প্রয়োজন কেন?

আহলে বায়েত কারা? তাঁদের অনুসরণ করা প্রয়োজন কেন? আহলে বায়েত কারা? তাঁদের অনুসরণ করা প্রয়োজন কেন? পাক পান্জাতন ছাড়া ধর্ম মিথ্যা কেনো। ‘আহাল’ শব্দের অর্থ মালিক! যোগ্য ও পরিবার-পরিজন এবং ‘বায়েত’ অর্থ গৃহ৷ ‘আহলে বায়েত’ বলতে রাসুল (সাঃ) -এর পরিবার – পরিজনকে বুঝায়৷ প্রচলিত অর্থে – হযরত রাসুল (সাঃ) -এর পরিবার -পরিজনকে আহলে বায়েত বলা […]

Continue Reading ➞

রাসূল পাক (সাঃ) নূরের তৈরি এবং নূর মুহাম্মাদের সৃষ্টি আদি কথা।

রাসূল পাক (সাঃ) নূরের তৈরি এবং নূর মুহাম্মাদের সৃষ্টি আদি কথা। “হে রাসূল! আমি আপনাকে সাক্ষীদাতা ও সুসংবাদ দাতা এবং সতর্ককারী হিসেবে প্রেরণ করেছি” (সূরা আহযাব , আয়াত নং ৪৫)। “স্মরণ কর, যখন আল্লাহ নবীদের অঙ্গীকার নিয়েছিলেন যে, তোমাদের কিতাব ও হিকমত যা কিছু দিয়েছি, অতঃপর তোমাদের কাছে যা আছে তার সমর্থকরুপে যখন একজন রাসূল […]

Continue Reading ➞

মাওলা আলীকে ভালোবাসার নামই ধর্ম।

মাওলা আলীকে ভালোবাসার নামই ধর্ম। হযরত রাসূল পাক (সঃ) বলেন, ১/ “আলী কে যারা মহব্বত করে তারা মুমিন”। (আহামদ তিরমিযী, মিশকাত ১১ তম খন্ড ১৫৬ পৃ:) ২/ “আলী মোমিনদের মেরুদণ্ড” (কাঞ্জুল উম্মাল, ১২তম খ-পৃঃ ২০৪, হাদিস নং ১১৫৮) ৩/ “ওহে আলী, মুনাফিক কখনো তোমাকে ভালোবাসবে না এবং ঈমানদার কখনো তোমার শত্রু হবে না।” (সূত্র -তিরমিজি […]

Continue Reading ➞

বায়াত গ্রহণ ছাড়া মুসলমান হওয়া যায়না (কুরআনের ঘোষণা)।

বায়াত গ্রহণ ছাড়া মুসলমান হওয়া যায়না (কুরআনের ঘোষণা)। বায়াত গ্রহণ ছাড়া মুসলমান হওয়া যায় না। পবিত্র কুরআন শরীফে আল্লাহ এটি স্পষ্ট ঘোষণা করছেন। আসুন জেনে নিই কোরআন ও হাদিসের আলোকে। “হে রাসূল (সঃ) যারা আপনার হাতে বায়াত গ্রহন করে তারা আল্লাহর হাতেই বায়াত গ্রহন করে। আল্লাহর হাত তাদের হাতের উপর”। (সূরা আল ফাতহ ৪৮: আয়াত […]

Continue Reading ➞

রাসূল পাক (সাঃ) ছিলেন দোজাহানের ধনী এবং তিনাকে নিয়ে সমাজের প্রচলিত ভুলধারণা।

রাসূল পাক (সাঃ) ছিলেন দোজাহানের ধনী এবং তিনাকে নিয়ে সমাজের প্রচলিত ভুলধারণা। আসুন কোরআন ও হাদিসের আলোকে জেনে নিন। “আমি আপনাকে জগৎ সমূহের রহমত হিসেবে প্রেরণ করেছি”। (সূরা আম্বিয়া, আয়াত নং ১০৭)। “হে রাসূল আপনি) নামাজ কায়েম কর ও যাকাত দাও”। (সূরা বাকারা, আয়াত নং ১১০)। “হে রাসূল) আমি আপনাকে অসহায় অবস্থায় পেলাম, অতঃপর আপনাকে […]

Continue Reading ➞

আল্লাহর আকার নিয়ে কুরআনে ৪ হাজারের উপর আয়াত এবং ১৮ হাজার হাদিস রয়েছে।

আল্লাহর আকার নিয়ে কুরআনে ৪ হাজারের উপর আয়াত এবং ১৮ হাজার হাদিস রয়েছে। আসুন জেনে নিই কোরআন ও হাদিসের আলোকে: “যে তার প্রতিপালকের দেখার কামনা করে, সে যেন উওম কাজ করে”।( সূরা আল কাহফ ১৮, আয়াত ১১০)। “হে মানুুষ! তুমি তোমার প্রতিপালকের নিকট পৌছানো পর্যন্ত সাধনা করতে থাক, অতঃপর তুমি তার দেখা লাভ করবে”। (সূরা […]

Continue Reading ➞
error: অনুমতিহীন কপিকরা দণ্ডনীয় অপরাধ!